Achieving Enormous Opportunities from Work Based Scholarship

তারেক মনোয়ার ড্যাফোডিল  পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ষষ্ঠ সেমিস্টারের একজন শিক্ষার্থী। তিনি ড্যাফোডিল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে পড়ছে এবং একই ইনস্টিটিউটে কর্মরত রয়েছে।

তার কাছে ড্যাফোডিল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে ফুলস্টাক ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে যুক্ত হওয়ার কথা জানতে চাইলে তিনি বলেন,

“২০১৯ সালের শুরুর দিকে ড্যাফোডিল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে একটা জব ফেয়ার আয়োজন করা হয়। সেখানে সে জানতে পারে যে ড্যাফোডিল  পলিটেকনিকে ওয়ার্কবেস  স্কলারশিপে 

যুক্ত হবার সুযোগ আছে। 

তিনি আবেদন করেন ড্যাফোডিল পলিটেকনিকে ওয়ার্কবেস  স্কলার্শিপে। এখানে তার সাথে সাথে অনেকেই আবেদন করেছিলেন। বিভিন্ন ধরনের পরীক্ষার পরে তিনি ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে কাজ করার সুযোগ পান। 

 

তিনি আমাদের কাছে শেয়ার করেন তার শুরুর কথা। তিনি বলেন যেহেতু তিনি মাদ্রাসা থেকে পড়াশোনা করেছেন তাই তার পক্ষে টেকনিক্যাল লাইনে আসা অতটা সহজ ছিলো না। 

তার শেখার শুরুটা হয় মূলত ইন্টারমিডিয়েট থেকে তখন সে সি-প্রোগ্রামিং নিয়ে কাজ করতেন। তাদের একটা কোর্স ছিল ইনফরমেশন কমিউনিকেশন টেকনোলজি (আইসিটি)। তখন সে দেখলেন এই কোর্সের মাধ্যমে তার বিভিন্ন কনসেপ্ট ক্লিয়ার হচ্ছে, তার যে বিষয়গুলো সম্পর্কে ধারণা ছিলনা সে সকল বিষয়ে জানতে পারছে। তারপর তিনি প্রোগ্রামিং এর ব্যাপারে সিরিয়াস হোন।  গ্রামে তার মোটামুটি মানের একটা ল্যাপটপ ছিল ওইটাতে সে মূলত সি প্রোগ্রামের কাজ করা শুরু করেন। পরবর্তীতে সে পাইথন থেকে শুরু করেন এবং ব্যাকেন্ড এর জন্য 
পাইথনের যে ওয়েব Framework "Django" শেখা শুরু করেন এবং এটা শেখার পরে তিনি কিছু কাজ করতে শুরু করেন। প্রথমে তার এক বড় ভাইয়ের সাথে হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট নামে একটা প্রজেক্ট নিয়ে কাজ করেন পরবর্তীতে তিনি ড্যাফোডিল পলিটেকনিক এ জয়েন করেন। 

তাছাড়া তিনি বর্তমানে কিছু ওপেনসোর্স প্রজেক্ট নিয়ে কাজ করছেন এবং পার্সোনাল কিছু প্রজেক্টের কাজ শেষ করেছেন। তাছাড়া তিনি কিছু ক্লায়েন্টের সাথে ফ্রিল্যান্সিং এর কাজ করছেন। 

যারা এ ফিল্ড আসতে চান তাদের জন্য পরামর্শ দেন এবং বলেন, যারা শুরুর দিকে এই ফিল্ডে কাজ করে তারা অনেক সময় মিসগাইডেড হয়। 
 কিছু ব্যাপারে তাদের সচেতনতা খুব কম থাকে যেমন, ল্যাঙ্গুয়েজ। 

তারা মনে করে যে শুধুমাত্র বাংলা দিয়েই তারা তাদের ক্যারিয়ারে ভালো করতে পারবেন। তিনি এটা মনে করেন না কারণ যখনই আমরা 
নতুন কোনো কিছু শিখতে চাই বা অ্যাডভান্স লেভেলের কিছু শিখতে চাই 
অথবা অনলাইন  থেকে কিছু  শিখতে চাই তখন আামাদের বাংলার পাশাপাশি ইংরেজি ভাষাগত দক্ষতার প্রয়োজন। 

 

Authored By:
Asha Ahmed

Comments

Sign in to comment