বৈদ্যুতিক লাইনে বাতিগুলো কিভাবে সংযোগ করতে হয়? / How to connect the lights in the electrical line?

 

বিদ্যুৎ ছাড়া আধুনিক সভ্যতা চিন্তাই করা যায় না। আমাদের দৈনন্দিন জীবনের প্রতিটিক্ষেত্রেই বিদ্যুৎ-এর প্রয়োগ দেখা যায়। বাড়ি-ঘর, দোকান-পাট আলোকিত করা, কলকারখানা, ট্রাম, ট্রেন, পাখা সবকিছুর জন্য বিদ্যুৎ-এর প্রয়োজন। টেলিভিশন, রেডিও, টেলিফোন, টেলিগ্রাফ প্রভৃতি সচল রাখতে বিদ্যুৎ-এর প্রয়োজন। এসবক্ষেত্রে বিদ্যুৎকে আলোকশক্তি, তাপশক্তি, যান্ত্রিক শক্তি ইত্যাদিতে রূপান্তর করা হয়।আজ আমরা বিদ্যুৎ শক্তি থেকে আলোক শক্তি তথা কিভাবে বৈদ্যুতিক লাইনে বাতিগুলো সংযোগ করতে হয় এ বিষয়গুলো আমরা জানবো

বৈদ্যুতিক বাল্ব কি?

তড়িৎ প্রবাহের তাপীয় ক্রিয়া প্রয়োগে বৈদ্যুতিক বাতি আবিষ্কৃত হয়েছে। গঠন প্রকৃতির উপর ভিত্তি করে বৈদ্যুতিক বাতিকে প্রধানত তিন ভাগে ভাগ করা যায়। যথা- কার্বন ফিলামেন্ট, ধাতব ফিলামেন্ট ও গ্যাসপূর্ণ বাতি।

 

সাধারণত একটি কাঁচের বাল্বে নিষ্ক্রিয় গ্যাস বা বায়ুশূন্য থাকে। দুইটি মোটা তার বাল্বটির বায়ু নিরুদ্ধ মুখের মধ্য দিয়ে প্রবেশ করানো হয়।এই দুই তারের দুই প্রান্তের সঙ্গে সরু টাংস্টেনের তার কুন্ডলী সংযুক্ত থাকে। এটিকে ফিলামেন্ট বলে। আজকাল ফিলামেন্ট টাংস্টেন, আয়রন এবং ম্যাঙ্গানিজের মিশ্রণে তৈরি করা হয়। এ সংকর ধাতুর নাম উলফ্রেমাইস। অনেক সময় কার্বন ফিলামেন্ট হিসেবে ব্যবহার করা হয়। ফিলামেন্টের রোধ অনেক বেশি থাকায় তড়িৎ চালনার সময় তাপের উদ্ভব হয় এবং আলো পাওয়া যায়। ফিলামেন্টের রোধের উপর ভিত্তি করে বিভিন্ন প্রকার ক্ষমতার বাল্ব তৈরি হয়ে থাকে।

সাধারণ লাইট, এনার্জি লাইট এবং এলইডি লাইটের কানেকশন

বৈদ্যুতিক বাল্ব সংযোগের জন্য কয়েকটি জিনিস প্রয়োজন যেমন একটি হোল্ডার , বাল কানেক্টিং ওয়ার,  সুইচসংযোগের প্রথমেই কানেক্টিং ওয়ার কে বৈদ্যুতিক হোল্ডার এর দুই প্রান্তে ভালোভাবে সংযুক্ত করতে হবে এবং এই কানেক্টিং ওয়ার কে মাঝখানে একটি ওয়ার কেটে সেখানে সুইচের দুই প্রান্ত সংযোগ করতে হবে এবার সুইচ থেকে একটি প্রান্ত বের হয়ে আসবে এবং অপর প্রান্ত লাইটিং হোল্ডার যাবে সুইচ থেকে যে প্রান্ত খোলা থাকবে এবং হোল্ডার থেকে সরাসরি যে প্রান্ত বের হয়ে আসবে এই দুইটি প্রান্ত কে আমাদের সুইচবোর্ডের নেগেটিভ পজেটিভ প্রান্ত সাথে সংযুক্ত করতে হবে তাহলে এভাবে আমরা একটি লাইট কে বৈদ্যুতিক কানেকশন এর সাথে যুক্ত করতে পারে

টিউব লাইটের কানেকশন

টিউব লাইটের তারের সংযোগ টিউব লাইটের তার লাগানোর সব কাজ নিচ থেকে করে নিতে হবে৷ এজন্য প্রথমেই টিউব লাইটের ফ্রেম বা পাতের ডান পাশে ব্যালেস্ট লাগিয়ে ফেলতে হবে৷ ব্যালেস্টের ঠিক বাম পাশে ১টি টিউব হোল্ডারে লাগাতে হবে৷ তার আগে হোল্ডারের ঠিক উপরের নাটটি খুলে ফেলতে হবে৷নাটটি খুললে হোল্ডারের ভিতর থেকে স্প্রিং ও হোল্ডারের নাটবোল্ড বেরিয়ে আসবে৷হাতে থাকা লাল অথবা কালো তার থেকে ৪ ইঞ্চি তার কেটে নিতে হবে৷ তারটির দুই মুখের ইন্সুলেশন এক ইঞ্চি কেটে নিয়ে এক মুখ ঢুকিয়ে নিবো ব্যালেস্টের নিচের পয়েন্টে৷ ব্যালেস্টের স্ট্যার্টার হোল্ডারের কাজ শেষ হওয়ার পর ব্যালেস্টের উপরের পয়েন্টে তারের সংযোগ দিতে হবে৷


এরপর তারের অপর মুখটি খোলা হোল্ডারের পিছনের ছিদ্র দিয়ে ঢুকিয়ে দিতে হবে৷ খোলা হোল্ডারের মধ্যে দুটি নাটবোল্ট আছে৷ এই নাটবোল্ট দুটির মধ্যে উপরের নাটবোল্টে তার ঢুকিয়ে নাট এঁটে দিতে হবে৷হাতে থাকা লাল তার থেকে সাড়ে ৪ ফুট তার মেপে তারটির ইন্সুলেশন কেটে নিতে হবে৷ তারটির এক মুখ একই নিয়মে খোলা হোল্ডারে ভিতরের অপর নাটবোল্টে ঢুকিয়ে নাট এঁটে দিতে হবে৷ এবার এই তারটির অন্য মুখটি হোল্ডারের পিছনের ছিদ্র দিয়ে বাইরে বের করে নিতে হবে৷এখন হোল্ডারটির মুখ ভিতরের দিকে চাপ দিয়ে হোল্ডারের উপরের নাট লাগিয়ে দিতে হবে৷

এরপর হোল্ডারটি টিউব লাইটের ফ্রেমের সাথে স্ক্রু দিয়ে লাগিয়ে ফেলতে হবে৷হোল্ডারের ছিদ্র দিয়ে বাইরে বেরিয়ে আসা তারটি ফ্রেমের অপর মুখে,‌ স্টার্টার পয়েন্টে নিয়ে যেতে হবে৷ এবার তারের এই মুখটি স্টার্টার হোল্ডারের ভিতরে বাম পাশের নাটবোল্টে লাগিয়ে এঁটে দিতে হবে৷হাতে থাকা অবশিষ্ট তার থেকে ৩ ফুট তার কেটে তারটির দুই মুখের ইন্সুলেশন কেটে নিবো৷ এবার তারটির এক মুখ স্টার্টার হোল্ডারের ভিতরের ডান পাশ থাক নাটবোল্টে লাগাতে হবে৷

তারপর হোল্ডারটি ফ্রেমে বসিয়ে নাট এঁটে দিতে হবে৷এবার ব্যালেস্টের উপরের পয়েন্টে তারের সংযোগ দিতে হবে৷ সেজন্য স্টার্টার হোল্ডারের ডানপাশের পয়েন্টে লাগানো তারটির অপর মুখ ব্যালেস্টের উপরের পয়েন্টে লাগিয়ে নাট এঁটে দিতে হবে৷ এভাবেই টিউব লাইটের তার লাগানোর কাজ শেষ হবে৷এবার তারের কাজ শেষ করে রাখা টিউব লাইটের ফ্রেমটি নিয়ে স্ক্রু পয়েন্ট বরাবর দেয়ালে ছিদ্র করতে হবে৷ দেয়ালের ছিদ্রের মধ্যে রাওয়াল প্লাগ ঢুকানোর পর ফ্রেমটি স্ক্রু দিয়ে দেয়ালের সাথে এঁটে দিতে হবে৷ সিলিং রোজের বাটিটি বামদিকে ঘুরিয়ে খুলে ফেলতে হবে৷টিউব লাইটের ফ্রেমের উপর ঝুলে থাকা লাল ও কালো তার দুটি সিলিং রোজের বাটির ছিদ্র দিয়ে ঢুকাতে হবে৷ এবার বাটিটির ছিদ্র দিয়ে ঢুকানো লাল তারটি সিলিং রোজের বামপাশের পয়েন্টে এবং কালো তারটি ডানপাশের পয়েন্টে ঢুকিয়ে দিতে হবে৷

এরপর নাট দুটি এঁটে সিলিং রোজের বাটিটি ডানদিকে ঘুরিয়ে পেঁচ লাগিয়ে দিতে হবে৷প্রথমেই ফ্যানের ৩টি পাখা বা ব্লেড ফ্যানের বডির সাথে স্ক্রু দিয়ে লাগাতে হবে৷ তারপর ফ্যানটি ছাদের সাথে লাগানো বাঁকা রডটিতে নাটবোল্ট দিয়ে আটকিয়ে দিতে হবে৷ এবার ফ্যান থেকে বের হওয়া তার দুটির সাথে সিলিং রোজের তার দুটির পিগ টেইল জয়েন্ট দিতে হবে৷ এরপর ঐ জয়েন্ট দুটি আলাদা আলাদাভাবে পিভিসি টেপ দিয়ে মুড়ে দিতে হবে৷ঘরের ভিতরের সব সুইচগুলো অফ করে মেইন সুইচের পাশে লাগাতে হবে৷ মেইন সুইচটি উপরের দিকে চাপ দিয়ে অন করতে হবে৷এরপর সুইচ বোর্ডের যেকোন একটি সুইচও অন করতে ৷

উপরে বর্ণিত বৈদ্যুতিক বাতির কানেকশন পদ্ধতিগুলো অবলম্বন করে বৈদ্যুতিক বাতিগুলোকে ইলেকট্রিক লাইনের সাথে সংযোগ করা যাবে ৷আমি আশাকরি এখন সকলেই যেকোনো ধরনের বৈদ্যুতিক বাতিকে ইলেকট্রিক লাইনের সংযোগ করতে পারবে৷ 

 

লিখেছেন

মোঃ শফিকুল ইসলাম মিলন

ইন্সট্রাক্টর

ইলেকট্রিক্যাল ডিপার্টমেন্ট

ড্যাফোডিল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট

Comments

Sign in to comment